আবু জর গিফারী রা. ইসলাম গ্রহণ

হযরত আবু জর গিফারী রা. ছিলেন আরবের তৎকালীন অন্যতম ডাকাত গোত্র গিফারের এক যুবক। সে সময় নবীজির ইসলাম প্রচারের সংবাদ দূর-দূরান্তে ছড়িয়ে যায়।

দু-একজন করে মানুষ এসে নবীজির নিকট ইসলাম গ্রহণ করতে থাকে। মক্কার সরদাররা প্রথম প্রথম নবীজির সাথে আগন্তুকদের সাক্ষাৎকে ভালো চোখে দেখে নি।

তাই তারা নজরদারি করতে থাকে। কখনো কখনো সাক্ষাৎকারীদের ভুল কিছু বুঝিয়ে তাদের ফিরিয়ে দিত কাফেররা।

আবু জর গিফারীর নিকট সংবাদ

সর্বপ্রথম আবু জর গিফারী তার ভাইয়ের নিকট মক্কার নবীর কথা শুনতে পান। তখন তিনি সোজা মক্কায় চলে আসেন।

মক্কাবাসীদের কার্যকলাপে তিনি বুঝতে পেরেছিলেন, নবুয়তের দাবীদার ব্যক্তির সাথে জনসম্মুখে সাক্ষাৎ করা নিতান্তিই বোকামীর কাজ।

তাই তিনি বাইতুল্লাহর নিকট অপেক্ষা করতে লাগলেন। আশা করলেন যে, কোনো একদিন হয়তো তার সাথে রাসূলের সাক্ষাৎলাভ হবে।

তখন আলী রা. এর সাথে তার পরিচয় হয়। তিনি তখন তার আগমনের উদ্দেশ্য জেনে নবীজির নিকট নিয়ে আসেন।

নবীজির সাথে সাক্ষাৎলাভ

নবীজি সা. তাকে খোশ আমদেদ জানিয়ে জিজ্ঞাসা করেন, তুমি কোন গোত্রর যুবক?

তিনি বললেন, গিফার গোত্রের।

রাসূল সা. এটা শুনে অত্যন্ত খুশী হলেন।  তিনি আবু জর গিফারীর হাত ধরে কালিমা পড়িয়ে দিলেন।

ইসলাম গ্রহনের পর আবু জর জিজ্ঞাসা করলেন,

এখন কি করবো? নবীজি তখন বললেন, আপাতত ইসলাম গোপন রাখ। কিন্তু তিনি বাইতুল্লাহর নিকট গিয়ে মুশরিকদের সামনে ইসলাম গ্রহণের ঘোষণা দেন।

তিনি তখন উচ্চস্বরে কালিমায়ে তাওহীদ পাঠ করেন। যথা:

لا الهَ اِلَّا اللّهُ وَحْدَهُ لا شَرِيْكَ لَهْ، لَهُ الْمُلْكُ وَ لَهُ الْحَمْدُ يُحْى وَ يُمِيْتُ وَ هُوَحَىُّ لَّا يَمُوْتُ اَبَدًا اَبَدًا طذُو الْجَلَالِ وَ الْاِكْرَامِ ط بِيَدِهِ الْخَيْرُ وَهُوَ عَلى كُلِّ شَئ ٍ قَدِيْرٌ

“আল্লাহ ব্যতীত কোন উপাস্য নেই | তিনি এক ও অদ্বিতীয় | তার কোন অংশীদার নেই | সকল ক্ষমতা এবং প্রশংসা তার জন্য | তিনি জীবন ও মৃত্যুর মালিক | তিনি চিরঞ্জীব, সকল সম্মানের মালিক | তার হাতেই সকল মঙ্গল সবকিছুর উপর তার ক্ষমতা রয়েছে।”

কাফেরদের আক্রমণ

তারা আবু জর গিফারীর এই স্বীকারোক্তিকে মেনে নিতে পারলো না। এটাই ছিল ইসলামে প্রথম হকের সুউচ্চ ধ্বনি।

কুরাইশরা তা সহ্য করতে না পেরে আবু জব গিফারীর উপর হামলা করে। হযরত আব্বাস তা দেখে কুরাইশদের থামানোর জন্য বলতে থাকেন,

এই লোক গিফার গোত্রের সন্তান। শাম থেকে আসা তোমাদের বাণিজ্য-কাফেলাগুলো কিন্তু তাদের এলাকা দিয়ে অতিক্রম করে।

এ কথা শুনার পর কাফেররা পিছু হটে যায়। কারণ, অন্যথায় তাদের ব্যবসায়িক কাফেলায় গিফাররা প্রতিশোধমুলক আক্রমণ করতে পারে।

পরেরদিন আবু জর আবার মক্কার কাফেরদের সামনে ইসলাম তুলে ধরেন। আবারও তিনি হামলার শিকার হন। আব্বাস রা. এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে।

আবু জর গিফারী রা. এর দাওয়াতি কার্যক্রম

এরপর নবীজির নির্দেশে আবু জব গিফারী রা. তার গোত্রে ফিরে যান। তিনি তার মা এবং ভাইকে প্রথম ইসলামের দাওয়াত দেন।

তারা ইসলাম কবুল করে নেয়। এরপর তিনি তার গোত্রের অন্যান্যদেরকেও ইসলামের দাওয়াত প্রদান করেন।

দেখতে দেখতে পুরো গোত্রই অল্পদিনের মধ্যে ইসলামে দাখিল হয়ে যায়।

তথ্যসুত্র

মুসলিম উম্মাহর ইতিহাস। খন্ড ১। পৃষ্ঠা ২৯১

আরো পড়ুন

গোপনে নবীজির ইসলাম প্রচার

বীমা কাকে বলে

হাজরে আসওয়াদ স্থাপনের ঘটনা

ফিরাজের যুদ্ধ

আবু জর গিফারী রা. কবে ইসলাম গ্রহণ করে ?

ইসলামের প্রথম যুগে তিনি ইসলাম গ্রহণ করেন

আমি একজন ইসলামিক আলোচক, লেখক। ছোটবেলায় পড়ালেখা করেছি কওমী মাদ্রাসায়। পরবর্তীতে সাইন্স বিভাগ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে কৃতিত্বের সাথে পাশ করি। বর্তমানে আমি ডিপ্লোমা ইন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ অধ্যায়নরত। অবসরে আমি বই পড়তে পছন্দ করি। নতুন কিছু শিখতে, নতুন কিছু জানতে ভালোবাসি। আমার ইচ্ছা, ভালো মানুষ হয়ে সমাজকে সৎ কাজের আদেশ ও অসৎ কাজে বিরত রাখার চেষ্টা করা।

https://www.arhasan.com