Privacy and policy

Privacy and policy – আমরা আমাদের ওয়েবসাইটটি তৈরি করেছি মানুষের উপকারের জন্য। মানুষের ভালোর জন্য।

একটা সময় ছিল, যখন মানুষ কিছুই পারতো না। মানুষ ছিল বড়ই অজ্ঞ। আল্লাহ তখন তাদেরকে শিক্ষা দিলেন।

তাদের নিকট রাসূল পাঠালেন। তারা জানতে পারলো নতুন কিছু। এর মাধ্যমেই মানুষ নিজেদের জ্ঞান বাড়াতে পারলো।

নবী মুহাম্মাদ সা.

নবী মুহাম্মাদ সা. ছিলেন পৃথিবীর সবচেয়ে স্মার্ট মানুষ এবং সবচেয়ে সুন্দর ব্যক্তি। তিনি ছিলেন সৃষ্টিকর্তার প্রতিনিধি। নবীজি নিজেকে আল্লাহর জন্য বিলিয়ে দিয়েছিলেন।

ইসলাম প্রচাররের মাধ্যমে তিনি আমাদের নিকট আনলেন সুন্দর একটি ধর্ম। একটি মহা বিধান।

আমরা নবীজিকে সম্মান করি। নবীজির ইতিহাস জানা আমাদের জন্য আবশ্যক। নবীজি কিভাবে চলতেন, কিভাবে কথা বলতেন, কিভাবে বাজার করতেন।

কিভাবে খাবার খেতেন এই প্রতিটি বিষয়ই তার উম্মত হিসেবে আমাদের জানা থাকা আবশ্যক।

আমরা এই ওয়েবসাইটে চেষ্টা করেছি নবীজির পূর্ণাঙ্গ জীবনীকে একত্র করার। এখানে নবীজির জীবনের শুরু থেকে নিয়ে শেষ পর্যন্ত প্রতিটি বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

পাশাপাশি আমরা আরো জানাবো নবীজির হাদীসগুলো। আলেমরা উক্ত হাদীস সম্পর্কে কি বলেন, তারা কি বক্তব্য জানাতে চান আমাদের, সেটাও জানবো ইনশাল্লাহ।

খোলাফায়ে রাশেদা

নবীজির ইন্তিকালের পর চারজন সাহাবী পর্যায়ক্রমে খেলাফতের মুসলিম উম্মাহকে পরিচালনার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন।

১. হযরত আবু বকর রা.

২. হযরত ওমর রা.

৩. হযরত উসমান রা.

৪. হযরত আলী রা.

তারা প্রত্যেকেই ছিলেন মহান সাহাবী। আমরা তাদের প্রত্যেককেই সম্মান করি। তাদের  ব্যাপারে আমরা এই আক্বীদা পোষণ করি, আল্লাহ ও তার রাসূল তাদের উপর সন্তুষ্ট।

তারা ক্ষমাপ্রাপ্ত ও দুনিয়াতে সুসংবাদপ্রাপ্ত সাহাবাদের মধ্যে অন্যতম। আমরা চার খলিফার জীবনী পর্যাক্রমে আলোচনা করবো ইনশাল্লাহ।

পাশাপাশি আমরা এটাও জানাবো, কিভাবে তারা চলাফেরা করতেন।  কিভাবে তারা কমিউনিকেশন করতেন, কিভাবে তারা বিচারকার্য পরিচালনা করতেন।

সাহাবা শাসক

উপরোক্ত চারজন খলিফা ব্যতিত আরো কয়েকজন সাহাবী শাসনকার্য পরিচালনা করেছেন। তারা হলেন,

১. হযরত হাসান রা.

২.  হযরত মুয়াবিয়া রা.

৩. হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে যুবায়ের রা.

তাদের ব্যাপারে আমরা ধারণা রাখি, তারা বৈধ শাসক ছিলেন।সে সময়ে  তারা সবচেয়ে জ্ঞানী ব্যক্তি ছিলেন। তবে তারা ভুলবশত কোনো যুদ্ধ করলে সেটার দায়ভার তারা বহন করবেন না।

আল্লাহ তাদেরকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। কুরআনেই ঘোষণা করা হয়েছে সাহাবাদের ক্ষমার ব্যাপারে। তাই তারা নিশ্চয় ক্ষমাপ্রাপ্ত সাহাবী বলে আমরা বিশ্বাস করি।

অতএব আমরা তাদের ইতিহাসও পূর্ণাঙ্গরূপে তুলে ধরার চেষ্টা করবো ইনশাল্লাহ।

অন্যান্য সাহাবারা

উপরোক্ত সাহাবারা ব্যতিত আরো অনেক সাহাবা ছিলেন, যারা রাসূলের হাতে মুসলমান হয়েছেন। তারা নিজেকে নিয়ে গিয়েছেন এক ভিন্ন মাকামে। তাই তাদের ব্যাপারে কুরআনে বলা হয়েছে,

“তারা ক্ষমাপ্রাপ্ত ও তারা আল্লাহর উপর সন্তুষ্ট এবং আল্লাহও তাদের উপর সন্তুষ্ট।”

তাই আমরা তাদের ব্যাপারে কোনো কটু কথা বলি না। যদিও তারা কোনো যুদ্ধে জড়িয়ে থাকে। তাদের ব্যাপারগুলো মহান আল্লাহর হাতে সোপর্দ করছি।

মুসলিম ইতিহাস

একজন মুসলিম হিসেবে আমাদের জানতে হবে আমদের নিজষ্ব ইতিহাস।

আমাদের জানতে হবে, কিভাবে ইসলামের সূচনা হলো। কিভাবে ইসলাম আরবে ছড়িয়ে পড়লো।

পাশাপাশি কিভাবে আশেপাশের অঞ্চল এমনকি চীন থেকে ইউরোপ পর্যন্ত ইসলাম ছড়িয়ে পড়লো।

আমরা আপনাদের নিকট সঠিক মুসলিম ইতিহাস তুলে দেয়ার চেষ্টা করবো প্রতিনিয়্যত।

যদি কখনো কোনো ভুল হয়ে যায় তা আমাদের ধরিয়ে দিলে আমরা অবশ্যই তা সংশোধন করে নিব।

ইসলামিক

ইসলাম শুধু একটি ধর্ম নয়। এটি একটি জীবন ব্যবস্থা। একটি একটি সিস্টেম।

আমরা মুসলিমরা নবীজির বাতানো পথে পথ চলি সর্বদা। কেননা তিনি মহামানব। তিনি স্রষ্টার পক্ষ হতে ওহী প্রাপ্ত হয়েছেন।

ইসলামের প্রতিটি বিষয় নিয়ে আমরা লেখার চেষ্টা করবো ইনশাল্লাহ।

পাশাপাশি আমরা চেষ্টা করবো নামাজের মাসআলাগুলো একত্র করার।

এমনকি আমরা আরো চেষ্টা কররো, মুসলিম হিসেবে আমাদের প্রথম কাজ কি?

রোজা, হজ্জ ও যাকাত নিয়েও আমরা আলোচনা করবো ইনশাল্লাহ।

ইসলামী উত্তরাধিকার নিয়ে ও আমরা আলোচনা করবো। যাতে একজন ব্যক্তি সঠিকভাবে সম্পত্তি বন্টন করতে পারে।

ইসলামের বেসিক থেকে অ্যাডভান্স পর্যন্ত আমরা আলোচনা করার চেষ্টা করবো ইনশাল্লাহ।

Copyright – কপিরাইট নোটিশ

আমাদের ওয়েবসাইটের কোনো লেখা যদি কেউ কপি করে কিংবা ছাপিয়ে অথবা প্রিন্ট করার চেষ্টা করে,

তাহলে বাংলাদেশ কপিরািইট আইন অনুযায়ী তার শাস্তি হবে।

নিচ থেকে আমাদের Privacy and policy গুলো পড়ুন।

আমাদের নীতিমালা

আমাদের Privacy and policy হলো,

আমরা সর্বদা অন্যকে সহায়তার চেষ্টা করি। এই ওয়েবসাইটটি তৈরির একমাত্র কারণ হলো, মানুষ যাতে উপকৃত হয়।

মানুষ যাতে প্রয়োজনীয় তথ্য খুব সহজেই খুঁজে পায়।

আমি নিশ্চয় আশা করবো, আমার ওয়েবসাইটের ভিজিটররা হবেন মুসলমান।

তবে যদি অন্য কোনো ধর্মের ভাই আমার সাইট ভিজিট করেন, তাহলে আমি তার মঙ্গল কামনা করছি।

কারণ, এই ওয়েবসাইটের কোনো কন্টেন্ট অন্য কোনো ধর্মের আঙ্গিকে লেখা হয় নি।

মুসলিম ধর্মের আঙ্গিকে এই ওয়েবসাইটের লেখাগুলো লেখা হয়েছে।

অতএব আমরা তাই প্রত্যেক ব্যক্তি যেন আমাদের মাধ্যমে উপকৃত হয়। একজন অন্য ধর্মের ভাই এই সাইট ভিজিট করে যেন ইসলাম সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা তিনি নিতে পারেন।

সেই চেষ্টা আমাদের থাকবে ইনশাল্লাহ।

ভুল সংশোধন

যদি আমাদের কোনো লেখায় ভুল যায় তাহলে আমরা আপনাকে উৎসাহিত করছি, আমাদের কমেন্ট বক্সে আপনার মূল্যবান মতামতটি লিখুন।

আমাদের ভুল আপনি ধরিয়ে দিন। কিন্তু যদি আপনি তা না করে, অশ্লীল ভাষায় গাজিগালাজ করেন তাহলে মনে রাখবেন,

আপনার সৃষ্টিকর্তা কিন্তু একদিন আপনার হিসাব নিবে। সেদিন কেউ আপনার পাশে থাকবে না।

গুগল এডসেন্স

আমাদের ওয়েবসাইটে গত ১৬ জুলাই ২০২২ তারিখ হতে ২৮ জুলাই ২০২২ তারিখ পর্যন্ত গুগল এডসেন্স চালু ছিল। পরবর্তীতে আমরা গুগল এডসেন্স বন্ধ করে দিয়েছি একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে।

এডসেন্স চালু থাকার সময় দেখেছি, অনেক অশ্লীল এবং অপ্রয়োজনীয় এড আমাদের সাইটে শো করতো। উক্ত কাজের জন্য আমি আব্দুর রহমান আল হাসান বিনীতভাবে ক্ষমা চাচ্ছি।

ভবিষ্যতে আমরা আর কখনো গুগল এডসেন্স চালু করবো না ইনশাল্লাহ।

সঠিক মুসলিম ইতিহাস জানতে আমাদের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: আমাদের লেখাগুলো সূচিপত্র অনুযায়ী দেখুন www.subject.arhasan.com এই ওয়েবসাইটে। আমরা কোন প্রকাশনীর বই রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করি তা জানতে ভিজিট করুন www.arhasan.com/book এই ওয়েবসাইটে। আমাদেরকে গুগল নিউজে ফলো করতে পারেন এই লিংক থেকে। আমাদের ইউটিউব চ্যানেল ভিজিট করুনএই লিংক থেকে