হযরত উম্মে কুলসুম রা. ছিলেন রাসূল সা. এর সম্মানিতা কন্যা। প্রথমে তার বিয়ে হয় আবু লাহাবের পুত্রের সাথে। কিন্তু সূরা লাহাব অবতীর্ণ হওয়ার পর সে উম্মে কুলসুমকে তালাক দেয়।

হযরত উম্মে কুলসুম রা. এর মূল নাম কি ছিল, তা জানা যায় না। তবে কয়েক ইতিহাসবিদ বর্ণনা করেন যে, তার নাম ছিল উমাইয়া। তিনি বয়সে ফাতেমা রা. এর বড় ছিলেন।

উমর রা. এর কন্যার ঘটনা

হযরত উসমান রা. এর প্রথম স্ত্রী রুকাইয়া রা. বদর যুদ্ধের সময় যখন ইন্তিকাল করেন, তখন এর কাছাকাছি সময়ে উমর রা. এর কন্যা হাফসা রা. এর স্বামীও ইন্তিকাল করেন।

উমর রা. তখন তার মেয়ের ব্যাপারে উসমান রা. এর নিকট প্রস্তাব নিয়ে আসেন। তিনি উসমান রা. কে বলেন, আপনি হাফসাকে বিয়ে করবেন?

পড়ুন: হযরত উসমান রা. এর স্ত্রী-সন্তানগণ

উসমান রা. যেহেতু হাফসা রা. এর ব্যাপারে নবীজির আগ্রহের কথা জানতেন তাই উমরের প্রস্তাবে তিনি নীরব থাকেন।

উমর রা. নবীজির কাছে এই বিষয়ে অনুযোগ পেশ করলে নবীজি বললেন, তুমি কি এর চেয়ে উত্তম কিছু চাও? আমি হাফসাকে বিয়ে করবো আর উসমানের নিকট আমার কন্যা উম্মে কুলসুমকে বিয়ে দিব?

উম্মে কুলসুম রা. এর বিয়ের ঘটনা

উম্মুল মুমিনীন হযরত আয়েশা রা. নবীকন্যা উম্মে কুলসুম রা. এর বিয়ের বিবরণ দিতে গিয়ে বলেন,

নবীজি উম্মে কুলসুমকে উসমানের সাথে বিয়ে দিলে উম্মে আয়মানকে বললেন,

আমার কন্যাকে রুখসত করার প্রস্তুতি নাও এবং দফ বাজাও। উম্মে আয়মান রা. তা করলেন। তিনদিন পর নবীজি তার মেয়েকে জিজ্ঞাসা করলেন,

মা, স্বামীকে কেমন পেলে? উম্মে কুলসুম বলেন, আব্বা, উত্তম হিসেবে পেয়েছি।

উম্মে কুলসুম রা.

উম্মে কুলসুম রা. এর ইন্তিকাল

হযরত উম্মে কুলসুম রা. উসমান রা. এর বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ থাকাকালে রোগাক্রান্ত হয়ে পড়েন। তিনি নবম হিজরীতে ইন্তিকাল করেন।

নবীজি তার জানাজার সালাত পড়ান এবং দাফনের সময় তার কবরের পাশে বসে পড়েন। নবীজি তখন বললেন,

তোমাদের মধ্যে এমন কে আছে, যে আজ রাতে স্ত্রীর সাথে সহবাস করো নি?

পড়ুন: রুকাইয়া রা. এর সাথে উসমান রা. এর বিবাহ

হযরত আবু তালহা রা. বললেন, আল্লাহর রাসূল, আমি আছি। নবীজি বললেন, তুমি তার কবরে নামো।

উম্মে কুলসুমের বিচ্ছেদ উসমানের মধ্যে বেশ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। তিনি ভীষণ চিন্তিত হয়ে পড়েন।

নবীজি দেখতে পান, তিনি ভারাক্রান্ত হৃদয়ে মাথা ঝুঁকিয়ে চলে যাচ্ছেন।

নবীজি তখন তার পাশে গিয়ে বললেন, উসমান আমার আর কোনো মেয়ে থাকলে তাকেও তোমার হাতে তুলে দিতাম।

এই কথাটি হযরত উসমান রা. এর প্রতি নবীজির ভালোবাসার প্রমাণ এবং নবীজির বিশ্বস্ততার দলীল।

তথ্যসুত্র

উসমান ইবনে আফফান, পৃষ্ঠা ৬৭-৭০

নাস্তিকদের অভিযোগ: নবীজি কি দেন-মোহরের টাকা না থাকায় আয়েশা রা. কে ঘরে তুলতে বিলম্ব করেছিলেন?

গাজ্জার জন্য অনুদান

৭ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে তুফানুল আকসা যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকেই ফিলিস্তিনের গাজ্জায় অসংখ্য মানুষ আহত ও শহীদ হয়েছে। বহু মানুষ নিজেদের ঘর-বাড়ী হারিয়েছে। এছাড়াও বর্তমানে গাজ্জার ৯৮% মানুষ অনাহারে জীবন-যাপন করছে। গাজ্জার মানুষের এই দুঃসময়ে আমরা যদি তাদের পাশে না দাঁড়াই তাহলে কে দাঁড়াবে?

আর-রিহলাহ ফাউন্ডেশন তুফানুল আকসা যুদ্ধের শুরু থেকেই ফিলিস্তিনের গাজ্জার জন্য ডোনেশন সংগ্রহ করে আসছে। এই মহান কাজে আপনিও আমাদের সাথে যুক্ত হতে পারেন।

অনুদান দিন

Scroll to Top