ধোঁকা ও প্রতারণা – মাঝেমধ্যে জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে গল্প শুনলে বা পড়লে নিজের ঝুলিতেও নতুন কিছু যু্ক্ত হয়। ভবিষ্যতে সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হয়।

আপনি যদি মানুষকে সহজেই বিশ্বাস করে বসেন তাহলে এটা আপনার ব্যর্থতা নয়।

বরং আপনার সফলতা। কিন্তু যেই ব্যক্তি আপনার বিশ্বাসকে পুঁজি করবে, সে হলো অপরাধী।

আপনি কখনো এটা ভাববেন না যে, অপরাধী ব্যক্তি ধর-ছোঁয়ার বাহিরে থাকবে। সে একটা সময় প্রতিদান পাবে। আর তা হবে বড়ই ভয়ঙ্কর।

আল্লাহ মানুষকে দুনিয়াতে শাস্তি দেন আবার আখিরাতেও শাস্তি দেন। তিনি কাউকে ছেড়ে দেন না।

কুরআনের ভাষ্য অনুযায়ী, বিন্দু পরিমান ভালো ও খারাপ কাজের হিসাব হবে।

আমার সাথে একটা ঘটনা আপনার জন্য শিক্ষণীয় হতে পারে। তবে এর জন্য আপনাকে পয়েন্ট অফ ভিউ বুঝতে হবে।

1

গত ২৪ জুলাই ২০২৩ তারিখে আমি ফেইসবুকে একটি অ্যাড দেখি। বর্তমানের সবচেয়ে আলোচিত ফোন iphone 14 pro & samsung galaxy S23 Ultra ফোনগুলো মাত্র 4000 টাকায় বিক্রি করছে।

এটা দেখেই বুঝতে পেরেছিলাম যে, এটা একটা স্ক্যাম বা ধোঁকা ও প্রতারণা ।

এরপরও মন চাইলো একটু শেষ পর্যন্ত বাজিয়ে দেখি। আসলে জীবনে বড় কোনো বাঁশ বা ধোঁকা খাই নি। তাই ভাবলাম, একবার খেলে মন্দ কি!

বাকী জীবনের জন্য একটা শিক্ষা হয়ে যাবে। তাই আমি তাদের বললাম, মোবাইলের জন্য কি কি লাগবে? বললো, 550 টাকা পাঠান।

বুঝলাম প্রথম টোপ। এরপরও আগ্রহ বেড়ে গেল দেখি শেষ পর্যন্ত। টাকা গেলে আবার হয়তো একটা সময় পাব। শিক্ষাটা পাব না।

তাই তাদের নম্বরে আমি 550 টাকা পাঠাই। এরপরের কাহিনীটা বেশ ইন্টারেস্টিং। তারা পরেরদিন ফোন দিয়ে বললো,

মোবাইলটা কুরিয়ারে আঁটকে আছে। আপনি আরো 1550 টাকা পাঠান। পাঠালাম। এরপর বললো, এখন আরো 1900 টাকা লাগবে।

আচ্ছা। এটাও পাঠালাম। টোটাল 4000 টাকা হলো। এরপর কি ঘটে তা জানতে আমার আগ্রহ বেড়ে গেল।

আমি অপেক্ষায় ছিলাম, কখন তারা আমাকে ব্লক করবে।

কিন্তু তারা যখন বুঝলে এই বান্দা তো চাইলেই টাকা দিচ্ছে, তাই আরো আদায় করি।

অন্য নম্বর থেকে ফোন দিয়ে বললো, ডেলিভারিম্যান বলছি।

আপনি 2800 টাকা পাঠান। কারণ, মোবাইলটা কান্টি রেজিঃ করতে হবে। আর আপনি 2800 টাকা মোবাইলের বক্সের ভেতরে পাবেন।

2

প্রিয় পাঠক! মূল গল্প এতুটুকুই। তারপর কি হয়েছে, তা জানার আগে একটা কথা বলি। বিক্রয় ডট কমে একটা কথা লিখা আছে।

কখনো স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি কম দামে কখনো কোনো কিছু ক্রয় করবেন না। কারণ তাতে ঝামেলা থাকে।

আসলেই এটা স্বরণে রাখার মতো একটা কথা।

এরপরও আমি তাকে 2800 পাঠালাম। যা হবার তাই হলো। নম্বর বন্ধ করে দিল। ও তারা ব্লক করে দিল।

আমার থেকে 6000 টাকা যাওয়াটা কোনো কষ্টকর নয়।

বরং কষ্ট তো এটাই যে, মানুষ এই ছয় হাজার টাকার জন্য কত বছর জাহান্নামে জ্বলবে! কল্পনা করলে গা শিঁউরে উঠে।

যদিও আমরা আল্লাহর হিসাব জানি না। এরপর আমরা আনুমানিক একটা হিসাব ধরি। 6000 টাকা মানে ৬ লাখ পয়সা।

আল্লাহ যদি প্রতিটা পয়সার জন্য একদিন করে জাহান্নামের শাস্তি দেয়। তাহলে মোট ৬ লাখ দিন। থামুন! এখানে একটা “কিন্তু” আছে।

আল্লাহর হিসাবে একদিন হলো আমাদের ১ হাজার দিনের সমান। সেই মোতাবেক দুনিয়ার হিসাবে ৬০ কোটি দিন অর্থাৎ প্রায় ১৬ লাখ বছর জাহান্নামে জ্বলতে হবে।

একটু কল্পনা করুন! একটু কল্পনা করুন! আমি এখানে দুইটা মেসেজ দিতে চাই।

মেসেজ এক:

কখনো কাউকে ধোঁকা দিবেন না। কারণ, সাময়িকভাবে আপনি যাকে আপনার আনন্দের বস্তু বানাচ্ছেন, অবশ্যই তা আপনার ক্ষতির কারণ হবে।

আজ আপনি যার জন্য অন্যকে কষ্ট দিচ্ছেন, অদূর ভবিষ্যতে সে ইনশাল্লাহ বড় কিছু হবে। আর আপনি কষ্টে জর্জরিত থাকবেন।

জাহান্নামের শাস্তি ধোঁকাবাজদের জন্য ফ্রি। তা বরাদ্দ থাকবেই।

মেসেজ দুই:

মানুষকে বিশ্বাস করবেন ততক্ষণ পর্যন্ত যতক্ষণ পর্যন্ত তার কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকে। যখন দেখবেন, সে অস্বাভাবিক কাজ করছে তখন তাকে ছুঁড়ে ফেলে দিন।

মানে তার থেকে দূরে থাকুন। কারণ সে আপনার ক্ষতির জন্য ওৎ পেতে আছে। অনলাইনে বা অফলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে বিশ্বস্ত শপ ব্যতিত কখনোই অগ্রিম ১ টাকাও দিবেন না।

কোনো জিনিষ যদি কমে পান তাহলে যাছাই করে নিন, এত কমে কি আসলেই পাওয়া সম্ভব কিনা।

নিজে জাহান্নাম হতে বাঁচুন এবং অপরকে জাহান্নাম হতে বাঁচান। ধন্যবাদ

গাজ্জার জন্য অনুদান

৭ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে তুফানুল আকসা যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকেই ফিলিস্তিনের গাজ্জায় অসংখ্য মানুষ আহত ও শহীদ হয়েছে। বহু মানুষ নিজেদের ঘর-বাড়ী হারিয়েছে। এছাড়াও বর্তমানে গাজ্জার ৯৮% মানুষ অনাহারে জীবন-যাপন করছে। গাজ্জার মানুষের এই দুঃসময়ে আমরা যদি তাদের পাশে না দাঁড়াই তাহলে কে দাঁড়াবে?

আর-রিহলাহ ফাউন্ডেশন তুফানুল আকসা যুদ্ধের শুরু থেকেই ফিলিস্তিনের গাজ্জার জন্য ডোনেশন সংগ্রহ করে আসছে। এই মহান কাজে আপনিও আমাদের সাথে যুক্ত হতে পারেন।

অনুদান দিন

Scroll to Top