আব্দুর রহমান আল হাসান

আব্দুর রহমান আল হাসান

আমি আব্দুর রহমান আল হাসান একজন ইসলামী ভাষ্যকার এবং লেখক। বর্তমানে আমি মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ ডিপ্লোমা করছি। অবসর সময়ে আমি বই পড়তে পছন্দ করি। ভালো লাগে নতুন কিছু শিখতে, নতুন কিছু জানতে। আমার ইচ্ছা একজন ভালো মানুষ হওয়া এবং সমাজকে খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করা।

আল্লাহ তা’আলা তাকেই ভালোবাসেন, যে আল্লাহর আনুগত্য করতে চেষ্টা করে

জন্ম:

১৪ জানুয়ারী ২০০২ খৃষ্টাব্দ

বিশ্বস্ত তথ্যানুসারে, ঢাকায় মনোয়ারা হসপিটালে আমার জন্ম। জন্মের পরে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত ছিলাম। কিন্তু আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে সেরে উঠি। সুস্থ হয়ে উঠি একটা সময়।
সবই আল্লাহর অপার দান। তিনি যাকে ইচ্ছা সূস্থ রাখেন। যাকে ইচছা রোগের মাধ্যমে পরীক্ষা করেন। আর তিনিই জানেন, কে মন্দ ও কে ভালো।

মনোয়ারা হসপিটাল

শিক্ষা জীবনের সূচনা

আমার শিক্ষা জীবন বড়ই অদ্ভুত। একই সাথে আল্লাহ কয়েকদিকে পড়াশোনা করার তাওফিক দান করেছেন। কখনো মাদ্রাসা, কখনো আলীয়া, কখনো বা ইন্সটিটিউট। তবে আল্লাহ সব জায়গায় তার দ্বীন এবং নির্দেশনা মোতাবেক চলার তাওফিক দিয়েছেন। এটাই আমার বড় প্রাপ্তি।

নার্সারি থেকে ক্লাস ওয়ান

আমার বয়স যখন ৫ বছর তখন আমি কম্বাইন্ড টিউটোরিয়াল স্কুলে নার্সারিতে ভর্তি হই। 
প্রথম প্রথম স্কুলে যেতে ভয় পেতাম। কেন যেন খুব কান্না পেত। আব্বু তখন স্কুলের অফিসে বসে থাকতেন। 
প্রথম কয়েক সপ্তাহ এভাবেই কাটলো। এরপর ভয় কেটে গেল। স্কুলে প্রায় সময় পরীক্ষায় প্রথম হয়েছি। 
আম্মুর ভাষ্য অনুযায়ী, ছোটবেলায় খানিকটা মেধাবী ছিলাম আমি। পড়াশোনাতেও আগ্রহী ছিলাম। 
নার্সারি, কেজি, ক্লাস ওয়ান আমি কম্বাইন্ড টিউটোরিয়াল স্কুলেই পড়ি। এরপর আমার জীবনের এক নতুন দিগন্ত শুরু হয়।

মক্তব এবং নাজেরা

স্কুলে ক্লাস ওয়ান পর্যন্ত পড়ার পর আর পড়ি নি। তারপর মাদ্রাসায় ভর্তি হলাম। ঢাকা শান্তিনগরে অবস্থিত মুসলিম জাতীয় মাদ্রাসায় ভর্তি হলাম আমি। আর আগে ৩ মাস ইস্কাটনে একটা মাদ্রাসায় পড়েছিলাম। কিন্তু আমার তা ভালো লাগে নি। 
শান্তিনগর মাদ্রাসায় পড়ার সময় এখানে আমি কায়দা ও আমপারা পড়তে শিখি। এরপর কুরআন শরীফ ও পড়তে শিখি এই মাদ্রাসা থেকে।
প্রায় দুই বছর এখানে পড়াশোনা করি। আমার জীবনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সময় ছিল এগুলো।

মুসলিম জাতীয় মাদ্রাসা
কুরআন শরীফ

কুরআন হেফজ করা

২০১০ সালের জুলাই কিংবা আগষ্টে আমার হেফজ বিভাগের দিকে যাত্রা শুরু। 
ভর্তি হয়েছিলাম সে সময়ে বনশ্রীতে অবস্থিত মাদরাসাতুল ইহসান লি উলূমিল কুরআন নামক মাদ্রাসায়। কয়েকমাস পর এটি স্থানান্তরিত হয়ে মগবাজার নয়াটোলায় চলে আসে।
প্রায় পাঁচ বছর আমি এখানে অধ্যয়ন করি।
আমার হেফজ শেষ হয়: ১৬ জুলাই ২০১৫ তারিখে।
মেধা দুর্বলতার কারণে প্রায় ৫ বছর সময় লাগে আমার হেফজ শেষ করতে। 
সে সময়ে পড়া প্রতিটি শিক্ষককে আল্লাহ যেন উত্তম প্রতিদান দান করেন

মসজিদ

২০১৫ সালে আমি ভর্তি হই মালিবাগে অবস্থিত মাদরাসাতুল হেরা আল ইসলামিয়ায়।
এখানে আমি এক বছর পড়ালেখা করি। 
হাফেজ হওয়ার পর সাধারণত এক বছর কুরআন শরীফ ভালোভাবে মুখস্ত রাখার জন্য পড়তে হয়

বেফাক

২০১৫ সালে আমি হেফজ বিভাগ থেকে বাংলাদেশ কওমী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে বোর্ড পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করি। আমাদের কেন্দ্র ছিল জামিয়া শারইয়্যাহ মালিবাগ মাদ্রাসা। 
বেফাক পরীক্ষায় আল্লাহর রহমতে জায়্যিদ জিদ্দান পেয়ে কৃতকার্য অর্জন করি।

মোবাইল ব্যবহার করার চেয়ে বই পড়া উত্তম। মোবাইল তোমাকে সাময়িকভাবে উপকৃত করলেও আজীবনের জন্য অপকার করছে। আর বই পড়াকে নেহায়েত সময় নষ্ট মনে হলেও এটা আজীবন তোমার উপকার করবে
abdur rahman
আব্দুর রহমান আল হাসান
শিক্ষার্থী, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং

পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর আমাদের জানা থাকা উচিৎ। ১. আমি কে? ২. আমি কিভাবে এলাম? ৩. আমার কি করা উচিৎ? ৪. আমি কি করছি? ৫. আমাকে কোথায় যেতে হবে?

চেষ্টা করতে গিয়ে কখনো হতাশ হয়ে যেও না। টমাস এডিসন ১০০০ বার ব্যর্থ হয়েছিলেন। তুমি কতবার ব্যর্থ হয়েছ?
আব্দুর রহমান আল হাসান
আব্দুর রহমান আল হাসান
শিক্ষার্থী, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং