তুফানুল আকসা যুদ্ধের ১২২ তম দিনের অভিযান

তুফানুল আকসা যুদ্ধের ১২২ তম দিন – ফিলিস্তিনের গাজ্জায় জায়োনিস্ট ইসলাইলিদের বিরুদ্ধে এখনও যুদ্ধ অব্যাহত করেছে ফিলিস্তিনি স্বশস্ত্র দলগুলো।

এর মধ্যে আল কাসসাম বিগ্রেড ও কুদস ব্রিগেড অন্যতম। গত ৭ অক্টোবরে শুরু হওয়া এই যুদ্ধের ১২২ তম দিন (৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪) চলমান।

আল কাসসাম ব্রিগেড তাদের অফিসিয়াল টেলিগ্রাম চ্যানেলে বলেছে,

ফিলিস্তিনের দক্ষিণ গাজ্জার বিভিন্ন মসজিদের আশেপাশে ও খান ইউনিস শহরের পশ্চিমে ইসরাইলি ‘মারকাভা’ টাঙ্ককে হামাসের ‘আল ইয়াসিন ১০৫’ শেল দিয়ে আক্রমণ করে।

এছাড়াও খান ইউনিস শহরের পশ্চিমে আল কাসসাম ব্রিগেড একটি বাড়িতে অবস্থানরত জায়োনিস্ট ইসরাইলি সৈন্যদের উপর অ্যান্টি-ফোর্টিফাইড টিবিজি শেল দিয়ে আঘাত করে তাদের হত্যা করে।

খান ইউনিস শহরের পশ্চিমে দখলদার ইসরাইলিদের গোয়েন্দা কার্যক্রমে যুক্ত স্কাইলার্ক রিকনেসান্স প্লেন আঁটক করতে সক্ষম হয় হামাস।

যুদ্ধ থেকে ফেরা একটি দল নিশ্চিত করেছে,

আল কাসসাম ব্রিগেড ‘আল ইয়াসিন ১০৫’ শেল দিয়ে একটি ইসরাইলি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে।

এছাড়াও ‘মারকাভা’ ট্যাঙ্কে মাটির নিচে বিস্ফোরক ডিভাইস লাগিয়ে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

এদিকে আল কাসসাম ও আল কুদস ব্রিগেড মিলে মর্টার শেল ও রকেট দিয়ে ইসরাইলি দখলদার বাহিনীকে ধ্বংস করতে সক্ষম হয়।

ইসলামিক জিহাদ আন্দোলনের সামরিক শাখা আল-কুদস ব্রিগেড বলেছে যে তারা অ্যান্টি-পার্সোনাল বোমা দিয়ে খান ইউনিস শহরে অগ্রসর হওয়ার প্রথম সারিতে ইহুদিবাদী সৈন্যদের আক্রমণ করে।

আল-কুদস ব্রিগেড গ্র্যাড ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে দখলদার সৈন্যদের দল সামরিক যানবাহনে বোমাবর্ষণ করে।

এতে বলা হয়েছে যে, এটি মধ্য গাজা উপত্যকার মাগাজি শিবিরের পূর্বে দখলদার সৈন্য এবং যানবাহনে মর্টার শেল দিয়ে বোমাবর্ষণ করেছে।

আল কুদস ব্রিগেড গাজা শহরের শিল্প ও পাসপোর্ট অফিসের আশেপাশে দখলদার সৈন্য এবং যানবাহনের সমাবেশে মিসাইল ও মর্টার শেল দিয়ে বোমাবর্ষণ করে।

তথ্যসুত্র

কুদস নিউজ নেটওয়ার্কের প্রকাশিত ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত,

القسام وسرايا القدس في اليوم 122 للطوفان.. عملياتٌ مشتركة ومشاهد جديدة

গাজ্জার জন্য অনুদান

৭ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে তুফানুল আকসা যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকেই ফিলিস্তিনের গাজ্জায় অসংখ্য মানুষ আহত ও শহীদ হয়েছে। বহু মানুষ নিজেদের ঘর-বাড়ী হারিয়েছে। এছাড়াও বর্তমানে গাজ্জার ৯৮% মানুষ অনাহারে জীবন-যাপন করছে। গাজ্জার মানুষের এই দুঃসময়ে আমরা যদি তাদের পাশে না দাঁড়াই তাহলে কে দাঁড়াবে?

আর-রিহলাহ ফাউন্ডেশন তুফানুল আকসা যুদ্ধের শুরু থেকেই ফিলিস্তিনের গাজ্জার জন্য ডোনেশন সংগ্রহ করে আসছে। এই মহান কাজে আপনিও আমাদের সাথে যুক্ত হতে পারেন।

অনুদান দিন

Scroll to Top